২৮৯ মিনিট আগের আপডেট; দিন ৪:৫৫; বুধবার ; ১৫ জুলাই ২০২০

ব্লগ

Noimage

১৩ জুলাই ২০২০, ১৯:৩৯

বোধের আয়নায় জীবনের ছবি!

Abu Sumain

ভালবাসা-জীবন-জীবিকা সবকিছু আমার কাছে মাঝে মধ্যে অর্থহীন হয়ে যায়। এই পৃথিবীতে কিসের নেশায় আমাদের এত ছুটাছুটি আমি অনুমান করতে গিয়ে রীতিমত স্তব্ধ হয়ে যাচ্ছি! কি দুঃসহ ; আমাদের জীবন ভাবনা । এতে আমাদের দোষ দিয়ে লাভ নেই। এটা আমাদের অর্জিত সংস্কৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বয়স বাড়ার সাথে সাথে জগতের নিয়মগুলো আমাকে দ্বিগুণ বেগে ভাবাচ্ছে। জন্মের পর বয়স বাড়ার সাথে স

Abu Sumain

একজন গরীবের চিকিৎসক ডাঃ মাধব চন্দ্র চৌধুরী। দীর্ঘদিন ধরে চকরিয়া পৌর সদরে বিভিন্ন এলাকায় হতদরিদ্র রোগীদের স্বল্প ফিতে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি এক সময় সরকারি হাসপাতালে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

পরে সরকারি চাকুরি ছেড়ে হতদরিদ্র রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন নিজস্ব চেম্বারে সকাল থেকে বিকাল, বিকাল থেকে রাত ১০ টা

Abu Sumain

বিশ্ব মহামারী কোভিড-১৯ করোনাভাইরাস মানুষে মানুষে সম্পর্কের নতুন মাত্রা নির্ধারণ করে দিচ্ছে। হাতে গোনা কিছু মানুষের খুব কাছাকাছি অবস্থান, অন্যদিকে কিছু মানুষের কাছ থেকে একেবারেই দূরে রেখে ব্যক্তিগত সম্পর্কের ক্ষেত্রে এক অভূতপূর্ব পরিবর্তন ঘটাচ্ছে করোনাভাইরাস। যেমন কাছের সঙ্গী কিংবা পরিবারের সদস্যদের সাথে প্রতিনিয়ত নিবিড় সম্পর্ক গড়ে ওঠার ইতিবাচক পরিব

Abu Sumain

"মা-মেয়ের মৃত্যুটাই যেন "অপরাধ", পরিবারটি এখন অবরুদ্ধ" শিরোনামে ১৬ জুন বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ভাইরাল হয় একটি নিউজ। খোঁজ নিয়ে পরিবারটির সাথে দেখা করতে যাই ঐ দিনই। এলাকাবাসী কর্তৃক লকডাউন করা সেই বাড়িটিতে অনেক কষ্টে প্রবেশ করে যা জানলাম চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থী শাহীন আক্তার। ১২ জুন করোনা উপসর্গে মৃত্যু হয় তার। মেয়ের শোক সহ্য করতে না পেরে এর

Abu Sumain

এক কালে দেশে মানুষ কম থাকতে জমি ছিল বেশী, উৎপাদন ছিল কম। খাদ্যের অভাবও ছিল তখন। আর আজ যখন দেশে মানুষ বেশী জমি কম, তখন উৎপাদন বেশী। তাই, স্বভাবতই, খাদ্যের অভার থাকার কথা নয়। কিন্ত জমি বেশী থাকতে যেখানে খাদ্যের অভাব ছিল আজ সেখানে জমি কম হওয়ার পরেও খাদ্যের এমন স্বয়ং সম্পূর্ণতা কেন? 

এই প্রশ্নের উত্তর বের করতে গিয়ে দেখা যায় অতীতে খাদ্য উৎপাদন এবং বা

Abu Sumain

আমার বড় ছেলে সাইয়ান হাসান আরহাব। তার বয়স আজ ৮ বছর পূর্ণ হলো। সে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু। বলতে গেলে সে অন্য স্বাভাবিক শিশুর মতো নয়। তাই তাকে আমরা স্বাভাবিক স্কুলে ভর্তি করাতে পারিনি। সে কক্সবাজারের বিশেষায়িত স্কুল অরুণোদয়ের শিক্ষার্থী। 

গত ১৮ মার্চ থেকে করোনা মোকাবেলার কারণে তাদের স্কুল বন্ধ রয়েছে। কিন্তু তাকে কিভাবে বুঝায় এখন তার স্কুল বন্ধ, ব

Abu Sumain

কবি - সাহিত্যিক - লেখক - গবেষক  হলেন সমগ্র বিশ্বের মানুষের চেতনার জলন্ত প্রদীপ। তাঁদের চেতনায় থাকে সত্য- সুন্দরের ঐকতান স্রোত। তাঁদের ধ্যান- ধারণায় আষ্টেপৃষ্ঠে লেগে থাকে ভূয়সী  দর্শন। আর সে দর্শনের উপর ভিত্তি করে রচিত হয় কোন দেশ কিংবা জাতির গৌরবগাঁথা।

এরা ক্ষণজন্মা। এরা বারবার জন্মায় না। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ,  দ্রোহ এবং প্রেমের কবি নজরুল কিং

Abu Sumain

করোনা বিপর্যয়ের চূড়ান্ত হিসেব নিয়ে এখনো কারো কোন মাথাব্যাথা নেই। কর্তৃপক্ষ কিছুটা এ নিয়ে ভাবলেও সাধারণ মানুষের মধ্যে নেই কোন দূরদর্শী চিন্তা এবং চেতনা। সাধারণ মানুষ দেশের অগ্রগতি এবং সম-সাময়িক সংকট মোকাবেলায় করণীয় কি সেটা নিয়ে না ভাবলেও সুশীল সমাজ এবং সুনাগরিকগণ করোনা সংকট নিয়ে নানানমুখী মতামত দিচ্ছে। 

এ নিয়ে বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে

Noimage

১০ এপ্রিল ২০২০, ২৩:৪৫

আমার পাঁচ ভাবনা!

Abu Sumain

আমরা শুধু মানুষের কু-কর্ম নিয়ে সমালোচনা করতে জানি। কু-কর্ম থেকে কিভাবে মানুষটাকে দূরে রাখা যায় সে  সমালোচনা -আলোচনা আমরা করতে জানি না । ভালবাসা ছড়িয়ে দেওয়ার মাঝে  যে শান্তি, সে শান্তি পৃথিবীর অন্য কোথাও নেই। অথচ সে আমরা ভালবাসা  না ছড়িয়ে, ছড়িয়ে দিই ঘৃণার বিষ- বাষ্প।

আমাদের প্রত্যেকের ভিন্ন পছন্দ- অপছন্দ থাকতে পারে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, আমার

Noimage

৩০ মার্চ ২০২০, ২০:৪৯

‘করোনা’ বনাম ‘বাঙালি’

Abu Sumain

সভ্যতার সূচনালগ্ন থেকে হাজার বছরের বিবর্তনজনিত সমীকরণ পেরিয়েই আমাদের আজকের পৃথিবী। এই হাজার বছরের পুরোনো সমীকরণজুড়ে ছিলো নানান ধরণের প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট দুর্যোগ আর পরিবর্তন। ছিলো যুদ্ধের ভয়াবহতা, পক্ষান্তরে শান্তির সোনালী দিন। বিভিন্ন ধর্মের বাণী পৌছানো নিয়েও কম কাঠখড় পোড়ানো হয়নি মানবশাসিত এই পৃথিবীতে। যুদ্ধবিগ্রহ, শান্তি, সুন্দর, কালো, সুগন্ধ,

Abu Sumain

জার্মান চ্যান্সেলর গিয়েছিলেন ডাক্তারের কাছে। ডাক্তার যে আক্রান্ত, তা ডাক্তার নিজে বা অন্য কেউই জানতেন না। ফলে রোগী ও ডাক্তার উভয়েই আক্রান্ত হলেন অতি ছোঁয়াচে, অতি অচেনা করোনাভাইরাসে।

করোনাভাইরাস অচেনা ও নতুন, তাই বলে মারাত্মকও। কেউ কিছু চেনার, বোঝার আগেই আক্রান্ত হচ্ছেন। যারা ভাইরাস বহন করছেন, তারা যেমন এ সম্পর্কে জানতেন না, যাদের মধ্যে সংক্রামিত

Noimage

৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:৪৯

চাই নিশ্চিন্ত নির্বিঘ্ন নতুন বছর

Abu Sumain

পৃথিবীর বর্ষপরিক্রমায় যুক্ত হলো আরেকটি পালক। নতুন একটি বর্ষে পদার্পণ করল এই অধরা। দিনে দিনে বর্ষ শেষ হয়ে এলো। ইতিহাসের পাতায় নথিভুক্ত হলো আরও একটি বছর ২০২০। সম্ভাবনার অপার বারতা নিয়ে শুরু হলো নতুন বছর। স্বাগত ইংরেজি নববর্ষ, স্বাগত ২০২০।

৩১ ডিসেম্বর রাত ১২টা ১ মিনিটে ভূমিষ্ঠ হলো নতুন একটি বছর। পুরনো একটি বছরকে পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার দুরন্ত