১৮৬ মিনিট আগের আপডেট; রাত ১০:২১; বৃহস্পতিবার ; ২০ জুন ২০২৪

চট্রগ্রামে লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্স পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

মাসুদ পারভেজ :: ১৮ মে ২০২৪, ১৫:১০

লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্স পরিদর্শনকালে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, ১৯৮২ সাল থেকে লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে যা অত্যন্ত প্রশংসাযোগ্য এবং অনুকরণীয়।

তিনি শুক্রবার লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং পরিচালিত স্থায়ী প্রকল্প লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের সেবা কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, লায়ন্স ক্লাব ও লিও ক্লাবের সদস্যগণ সাধারণ ও প্রান্তিক পর্যায়ের জনগণকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের এই মহতী উদ্যোগ আশাপ্রদ ও উৎসাহব্যঞ্জক। জেলা প্রশাসক এ সময় লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের সেবা কার্যক্রম এগিয়ে নেয়ার জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দু’ লক্ষ টাকা অনুদানসহ সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের সেবা কর্মকাণ্ড পরিদর্শন করে লায়ন ও লিও সদস্যদের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি আগামীতে বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারের পাশাপাশি লায়ন সদস্যদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগংয়ের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ও লায়ন্স জেলা ৩১৫বি৪, বাংলাদেশের প্রাক্তন জেলা গভর্নর ফোরামের চেয়ারম্যান একুশে পদকজয়ী লায়ন এম এ মালেক এ সময় জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানকে ক্লাবের পক্ষ থেকে বই উপহার দেন।

লায়ন এম এ মালেক বলেন, সম্মাননা ও উপহার হিসেবে বই প্রদানের এই সংস্কৃতি চালুর মাধ্যমে আমরা আমাদের মাঝে বইপড়ার অভ্যাস ফিরিয়ে আনতে চাই। এ সময় উপস্থিত ছিলেন লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের চিফ কো-অর্ডিনেটর পিডিজি লায়ন কামরুন মালেক, প্রাক্তন জেলা গভর্নর লায়ন ডাঃ শ্রীপ্রকাশ বিশ্বাস, ক্লাবের পক্ষ থেকে লায়ন্স জেলার আগামীদিনের কাণ্ডারি লিও-লায়ন রাজিব সিনহা, প্রাক্তন কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন গোপালকৃষ্ণ লালা, প্রাক্তন কেবিনেট ট্রেজারার লায়ন মোঃ মোসলেহউদ্দিন খান, লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের চেয়ারম্যান লায়ন ডাঃ গোপাল ভট্টাচার্য ও ক্লাবের সদ্যপ্রাক্তন সভাপতি লায়ন এম সোহেল খান।

লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগংয়ের প্রেসিডেন্ট লায়ন বাবুল কান্তি লালার সভাপতিত্বে ও লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের সেক্রেটারি লিও-লায়ন ডাঃ মেসবাহউদ্দিন তুহিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন জেলা গভর্নর ফোরামের চেয়ারম্যান একুশে পদকজয়ী লায়ন এম এ মালেক। তিনি বলেন, মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর ব্রত নিয়ে লায়ন্স ক্লাবস ইন্টারন্যাশনালের লায়ন ও লিও সদস্যবৃন্দ যেখানেই প্রয়োজন সেখানেই স্বতঃস্ফূর্তভাবে সেবার হাত প্রসারিত করে এগিয়ে যান।

লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের চিফ কো-অর্ডিনেটর পিডিজি লায়ন কামরুন মালেক চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বলেন, জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় বিগত ৪২ বছর ধরে কম সৌভাগ্যবান মানুষের তরে লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্স কাজ করে যাচ্ছে। সরকারের আর্থিক এবং প্রত্যক্ষ সহযোগিতার হাত আরও অবারিত হলে সেবা কার্যক্রমের পরিধি বৃদ্ধি করা সম্ভব। এ সময় তিনি এ বিষয়ে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করার আহ্বান জানান।

প্রাক্তন জেলা গভর্নর লায়ন ডাঃ শ্রীপ্রকাশ বিশ্বাস বলেন, মানুষের প্রতি সহানুভূতি ও ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে আসার ক্ষেত্রে সম্মিলিত প্রচেষ্টার আহবান জানান। লিও-লায়ন রাজিব সিনহার স্বাগত বক্তব্যের পর প্রাক্তন কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন গোপালকৃষ্ণ লালা এমজেএফ লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের সেবা কার্যক্রম এবং সমাজের প্রভাব নিয়ে বিস্তারিত বয়ান উপস্থাপন করেন।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন লায়ন্স জেলা ৩১৫বি৪, বাংলাদেশের প্রাক্তন কেবিনেট ট্রেজারার লায়ন তপন কান্তি দত্ত, প্রাক্তন কেবিনেট ট্রেজারার লায়ন মোঃ মোসলেহউদ্দিন খান, লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের চেয়ারম্যান লায়ন ডাঃ গোপাল ভট্টাচার্য, লিও ক্লাব ও লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগংয়ের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট লিও-লায়ন আবু নাসের রনি, কমপ্লেক্স ট্রেজারার লায়ন মোঃ আবদুর রব শাহীন, ক্লাবের সদ্যপ্রাক্তন সভাপতি লায়ন এম সোহেল খান, লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগংয়ের সেক্রেটারি ও লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের জয়েন্ট সেক্রেটারি লায়ন ইসমাইল চৌধুরী, ক্লাবের সেক্রেটারি (ইলেক্ট) ও লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের জয়েন্ট ট্রেজারার লায়ন মোহাম্মদ আইয়ুব এবং লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগংয়ের ট্রেজারার লায়ন বাসুদেব সিনহা।

লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগংয়ের কমপ্লেক্স ট্রেজারার লায়ন মোঃ আবদুর রব শাহীন, জয়েন্ট সেক্রেটারি লায়ন ইসমাইল চৌধুরী, জয়েন্ট ট্রেজারার লায়ন মোহাম্মদ আইয়ুবের তত্ত্বাবধানে লিও ক্লাব অব চিটাগংয়ের প্রেসিডেন্ট লিও শেখ মুনতাসির মামুন ও লিও ক্লাব অব চিটাগং এরিস্টোক্রেসি কেমব্রিয়ানের ভাইস প্রেসিডেন্ট লিও নাজমুল হাসানের নেতৃত্বে লায়ন ও লিও নেতৃবৃন্দ প্রায় শতাধিক রোগীর চক্ষু পরীক্ষা, ডায়াবেটিস পরীক্ষা, স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের নিয়মিত সেবা কর্মসূচি এলোপ্যাথিক ও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসাসেবা এবং বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ কার্যক্রম সুচারুভাবে সম্পন্ন করেন।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন লায়ন্স সার্ভিস কমপ্লেক্সের প্রাক্তন চেয়ারম্যান লায়ন সিলভার স্টার বার্নাডেট প্রাক্তন ক্লাব সভাপতি লায়ন মোহাম্মদ ইসমাইল চৌধুরী, লায়ন এস কে পালিত, লায়ন সাধন কুমার ধর, ভাইস প্রেসিডেন্ট লায়ন ওয়াহিদ মালেক, লায়ন রোকেয়া জামান, লায়ন অনুপম মজুমদার, লায়ন লিটন কান্তি দত্ত, লায়ন মিলন কান্তি চৌধুরী, লায়ন মহাদেব ঘোষ, লায়ন মুনির আহমেদ, লায়ন মোহাম্মদ ইব্রাহিম, লায়ন মোহাম্মদ জিয়াউল কবির সোহেল, লায়ন ফারুক আহাম্মদ, লায়ন ডাঃ অশোক কুমার দে, প্রাক্তন লিও ক্লাব সভাপতি লিও নাফিজ মিনহাজ, লিও সাজ্জাদ চৌধুরী ইভান, লিও রাহুল লালা, লিও তাসফিয়া আকতার, লিও রূপালী আকতার, ভাইস প্রেসিডেন্ট লিও শাহাদাত হোসেন সাইফ, লিও মিনহাজুর রহমান শিহাব, লিও বাঁধন ঘোষ, লিও মোহাম্মদ মাহফুজ, লিও নাজমুল হাসান, ক্লাব সেক্রেটারি লিও মাহমুদুন্নবী রানা, লিও সিয়াম উল্লাহ্, ট্রেজারার লিও রামিসা, লিও এমরান খান মেহেদী, লিও মিরাজ, লিও এনামুল, লিও তাসফিয়া, লিও সিয়াম, লিও মারিয়া দিলশাদ, লিও সানজানা তাহিয়া, লিও মাজহারুল, লিও সীমান্ত বড়ুয়া, লিও অপু, লিও উম্মে হাবিবা, লিও জয় বড়ুয়া, লিও সাকিব, লিও সরোয়ার, লিও তাসফিয়া, লিও সায়েদুল, লিও সাখাওয়াত, লিও মাজহারুল, লিও রাজেশ, লিও ওমন, লিও সুজন, লিও জয়, লিও সায়মা, লিও লুৎফুর, লিও বোরহান, লিও তুর্কি, লিও ফারসা, লিও ফাহাদ, লিও মিহান, লিও সিরাত, লিও তাসনিয়া প্রমুখ।